Tuesday, June 25, 2024

কতকগুলি শব্দের বিহিত বানান

অগস্টডিশমুশকিলশিয়া
অর্সা, অর্সানোতালাশম্যাজিস্ট্রেটশিরনি
আতশতামাশারেজিস্টারীশুরু
আদমশুমারতোশকলশকরশুরুয়া
আপসতোশাখানালাশশেমিজ
আফসোস, আপদুশমনশখশোরগোল
আয়েশনকশাশয়তানশোরা
আশকরানালিশশরবতশোহরত
আশনাইনাশপাতিশরমশৌখিন, খী
আশরফিনোটিসশরিকসপ
আসমানপোস্টশর্তসরপোশ
ইশকাপনফরমাশশহরসাজস
ইশাদীফরাশশহির্দ, শহীদসাদা
ইশারাবকশিশশাগরেদসালিস
কনস্টেবলবদমাশশাদিসিক
কিশমিশবারকোশশাবাশসুপারিশ
কুর্নিশবালাপোশশামলাস্টীমার
ক্লাসবিস্কুটশামিয়ানাস্টেশন
খরগোশবুরুশশামিলস্ট্যাম্প
খুশি/খুশীবেহুঁশশায়েস্তাস্ট্রীট
খোশব্যারিস্টারশার্টহামেশা
খোশামোদমশগুলশালগমহিস্টিরিয়া
চশমামাসুলশার্সিহুঁশ
জিনিসমুনশীশাহানাহুঁশিয়ার, হু

বিদেশী শব্দ s ধ্বনির জন্য ছ অক্ষর বর্জনীয়। কিন্তু যেখানে প্রচলিত বাংলা বানানে ছ আছে এবং উচ্চারণেও ছ হয়, সেখানে প্রচলিত বানানই বজায় থাকবে, যথা- ‘কেচ্ছা [কিস্সা], ছয়লাপ [সইল-অব], তছরুপ [তর্সরুপ], পছন্দ [পসন্দ্]’ ইত্যাদি।

ক্রিয়াপদ। সাধু ও চলিত প্রয়োগে কৃদন্তরূপে ‘করান, পাঠান’ প্রভৃতি অথবা বিকল্পে ‘করানো, পাঠানো’ প্রভৃতি বিধেয়। চলিত ভাষায় নাম বিভক্তি স্থানে বিকল্পে লুম বা-লেম লেখা যাইতে পারে। ক্রিয়াপদের বানানের জন্য পরিশিষ্ট ঙ দ্রষ্টব্য।

কতকগুলি সাধু শব্দের চলিত রূপ। -‘কুয়া, সূতা, মিছা, উঠান, উনান, পুরানো, পিছন, পিতল, ভিতর, উপর’ প্রভৃতি কতকগুলি সাধু শব্দের মৌখিক রূপ কলিকাতা অঞ্চলে অন্য প্রকার। যে শব্দের মৌখিক বিকৃতি আদ্য অক্ষরে (যথা ‘পেছন, ভেতর’), তাহার সাধু রূপই চলিত ভাষায় গ্রহণীয়, যথা- ‘পিছন, পিতল, ভিতর, উপর’। যাহার বিকৃতি মধ্য বা শেষ অক্ষরে, তাহার চলিত রূপ মৌখিক রূপের অনুযায়ী করা বিধেয়, যথা- ‘কুয়ো, সুতো, মিছে, উঠন, উনন, পুরনো’।

Related Articles

Latest Articles